Header Ads

বরদলুই থেকে ইস্টবেঙ্গল কী পেল?


কলকাতাঃ খানিকটা হলেও জ্বালা জুড়লো ইস্টবেঙ্গলের। শিলং লাজংকে হারিয়ে বরদলুইয়ের ফাইনালে লাল-হলুদ ব্রিগেড। আই-লিগ ও ফেড কাপে পাহাড়ি দলটার কাছে হারের ক্ষতটা এতদিন বড্ড ভোগাচ্ছিল সমর্থকদের।
হোক না বরদলুই। এই টুর্নামেন্টের গুরুত্ব কতটা আছে বা কতটা নেই সে সব আলোচনা করে এখন ফুটবলারদের ছোট করে কী লাভ। বরং দেখে নেওয়া যাক এই টুর্নামেন্ট থেকে প্রাপ্তির ভাঁড়ার কী হল।

আদিলেজাঃ এই স্ট্রাইকারকে নিয়ে অনেক বিতর্ক সেই কলকাতা লিগ থেকে। আদিলেজা নাকি গোল করতে পারেন না। কিন্তু ম্যাচের পর ম্যাচ গোল করে বুঝিয়ে দিলেন, তিনি গোলটা ভালই চেনেন। এমনকী তাঁর গোলেই লাল-হলুদ আজ ফাইনালে। আগামী দিনে বিশেষ করে আই-লিগে আত্মবিশ্বাস জোগাবে।

ডো-ডংঃ কলকাতা লিগে তাঁর পারফরম্যান্স সমর্থক থেকে কর্তা কারুর মন ভরায় নি। নিজেকে প্রমাণ করতে মরিয়া ছিলেন আর করেও দেখালেন। মাঝমাঠকে নেতৃত্ব দিলেন আবার তরুণদের আগলেও রাখলেন।

অ্যাকাডেমিঃ সিনিয়রদের বেশিরভাগেরাই দলে নেই। অ্যাকাডেমির ফুটবলারদের নিয়ে দল গড়া হয়েছিল। কোচ রঞ্জন চৌধুরী প্রথম থেকেই বলেছিলেন এখানে তরুণদের একটা কঠিন পরীক্ষা। আর তরুণরা কিন্তু নিজেদের প্রমাণ করে ছাড়ল। আর বুঝিয়ে দিল ইস্টবেঙ্গলের তরুণ ব্রিগেড তৈরি।

কোচিং স্টাফঃ মরগ্যান নেই। সহকারীও নেই। হঠাৎ দায়িত্ব দেওয়া হল অ্যাকাডেমির কোচ রঞ্জন চৌধুরীকে। আর তিনি নিজের দায়িত্ব দারুণভাবে সামলালেন। সঙ্গে গোলকিপার কোচ অভিজিৎ দারুণভাবে সাপোর্ট করে গেলেন রঞ্জনকে।

এসব কিছুর ফল-  ইস্টবেঙ্গল বরদলুইের ফাইনালে। মুখোমুখি নেপালের 'থ্রি-স্টার ক্লাব'-এর। শুভেচ্ছা রইল লাল-হলুদ ব্রিগেডকে। ট্রফি নিয়ে ফিরো।

No comments

Powered by Blogger.